Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রকল্প

 

Ø  টিচিং কোয়ালিটি ইমপ্রুভমেন্ট ইন সেকেন্ডারি এডুকেশন প্রজেক্ট-২ (TQI-SEP-II)

মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে এই প্রকল্প বিভিন্ন মেয়াদে প্রশিক্ষণ প্রদান করে থাকে। যেমন-শ্রেণিশিক্ষকগণের জন্য ১৪/২৪ দিন ব্যাপী CPD-1,CPD-2, আইসিটি বিষয়ক প্রশিক্ষণ, প্রধান শিক্ষক/সুপারগণের ২১ দিন ব্যাপী প্রশাসনিক প্রশিক্ষণ, বি.এড্ প্রশিক্ষণ বিহীন শিক্ষকগণের জন্য ৩মাস ব্যাপী STC প্রশিক্ষণ প্রদান করে থাকে। আরো বিস্তারিত জানার জন্য Vist করুণ www.tqi-sep.gov.bd

 

Ø  সেকেন্ডারি এডুকেশন কোয়ালিটি অ্যান্ড অ্যাকসেস এনহান্সমেন্ট প্রজেক্ট (SEQAEP) :

মাধ্যমিক পর্যায়ে মানসম্মত শিক্ষার প্রসার ও ঝরে পড়া রোধ করে শিক্ষার্থীদের ধরে রাখার হার বৃদ্ধি প্রয়াসে সরকার নানামুখী প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এগুলোর মধ্যে মাধ্যমিক পর্যায়ে বাস্তবায়িত ‘সেকেন্ডারি এডুকেশন কোয়ালিটি এ্যান্ড এ্যাকসেস এ্যানহেন্সমেন্ট প্রজেক্ট’ দরিদ্রমুখী অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি বৃহৎ প্রকল্প। বিশ্ব ব্যাংক-এর আর্থিক সহায়তায় বাংলাদেশ সরকার-এর শিক্ষা মন্ত্রণালয় অধীন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর ২০০৮ সাল থেকে প্রকল্পটি  বাস্তবায়ন করছে। এর ৪টি প্রধান কম্পোনেন্ট ও ১৩টি সাব-কম্পোনেন্ট রয়েছে। মূল সেকায়েপ ৬১ জেলার ১২৫টি উপজেলায় মোট ৬৭৮১টি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বাস্তবায়িত হচ্ছিল। অত্যন্ত সফল একটি প্রকল্প হিসেবে চিহ্নিত হওয়ায় বিশ্ব ব্যাংক কর্তৃক ২৬৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অতিরিক্ত অর্থায়নের প্রেক্ষিতে ২৬ জানুয়ারি ২০১৪-তে সেকায়েপ দ্বিতীয় সংশোধিত হয়েছে। এ অতিরিক্ত অর্থায়ন মূল প্রকল্পের অর্থায়নের প্রায় দ্বিগুণ। প্রকল্পটির বাস্তবায়ন মেয়াদ জুন ২০১৪ এর স্থলে ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত বর্ধিত এবং কর্মকান্ডের আওতা চলমান ১২৫টির অতিরিক্ত আরো ৯০টি উপজেলায় বাড়ানো হয়েছে। আরো বিস্তারিত জানার জন্য Vistকরুণ www.seqaep.gov.bd

 

Ø  সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (SESIP)

১০ বছর ব্যাপী (২০১৩-২০২৩) বাংলাদেশ সরকার ও এডিবির অর্থায়নে জাতীয় শিক্ষানীতির আলোকে মাধ্যমিক শিক্ষার উন্নয়ন করার লক্ষ্যে সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (SESIP)বাস্তবায়িত হচ্ছে। ধারাবাহিক মূল্যায়ন, কৃতিভিত্তিক ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি বাস্তবায়ন, কারিকুলাম বিস্তরণ, বিজ্ঞান শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি প্রদান ও এমপিও বিকেন্দ্রীকরণ এর অন্যতম উদ্দেশ্য।